Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes
Home / Featured / ব্রিটিশ শেভেনিং স্কলারশিপ ২০২১-২০২২ এর জন্য আবেদন চলছে

ব্রিটিশ শেভেনিং স্কলারশিপ ২০২১-২০২২ এর জন্য আবেদন চলছে

Share This:

ব্রিটিশ শেভেনিং স্কলারশিপ ২০২১-২০২২ সেশনের জন্য আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে আবেদন আহ্বান করা হচ্ছে। শেভেনিং বিশ্বজুড়ে ভবিষ্যৎ নেতা, প্রভাবশালী ব্যক্তি ও সিদ্ধান্ত গ্রহণকারীদের একটি অনন্য সুযোগ দিয়ে থাকে। যেখান তারা পেশাগত , শিক্ষার বিকাশ, ব্যাপকভাবে নেটওয়ার্কিং, যুক্তরাজ্যের  সংস্কৃতি সম্পর্কে অভিজ্ঞতা অর্জন এবং যুক্তরাজ্যের সাথে দীর্ঘস্থায়ী ইতিবাচক সম্পর্ক গড়ে তুলতে পারেন।

শেভেনিং স্কলারশিপ হল ইউকে সরকারের গ্লোবাল স্কলারশিপ প্রোগ্রাম, যা ফরেন অ্যান্ড কমনওয়েলথ অফিস (এফসিও) এবং অংশীদার সংস্থার অর্থায়নে বাস্তবায়ন করা হয়ে থাকে। এই স্কলারশিপ সাধারণত দেওয়া হয়ে থাকে নেতৃত্বের গুণাবলী আছে এমন  অসামান্য পণ্ডিতদের, যারা যুক্তরাজ্যের যে কোনও বিশ্ববিদ্যালয়ের যে কোনও বিষয়ে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জনের সুযোগ লাভ করে থাকেন।

প্রতিবছর ১১০ টিরও বেশি দেশের প্রায় ৭০০ শিক্ষার্থীদের জন্য বৃত্তি প্রদান করা হয়। যার মাধ্যমে উন্নয়নশীল দেশগুলির শিক্ষার্থীরা ব্রিটিশ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলিতে পড়ার সুযোগ লাভ করে। এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে প্রথম সারির আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয়সমূহও রয়েছে।

২০২১ সালে শেভেনিং স্কলারদের পড়াশুনার জন্য সবচেয়ে জনপ্রিয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হল লন্ডন স্কুল অফ ইকোনমিক্স অ্যান্ড পলিটিকাল সায়েন্স, ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডন এবং অক্সফোর্ড, কেমব্রিজ, এডিনবরা, নটিংহাম বিশ্ববিদ্যালয়, বাথ ইউনিভার্সিটি এবং কিংস কলেজ লন্ডন।

 

স্থান:

যুক্তরাজ্য

সুযোগ সুবিধাসমূহ

শেভেনিং বৃত্তি সাধারণত যেসব সুযোগ-সুবিধা দিয়ে থাকেঃ –

  • বিশ্ববিদ্যালয়ের টিউশন ফি।
  • মাসিক বৃত্তি।
  • যুক্তরাজ্য যাওয়া ও আসার ভ্রমণ ব্যয়।
  • ভিসার আবেদনের ব্যয়।
  • যুক্তরাজ্যের শেভেনিং ইভেন্টগুলিতে অংশ নেওয়ার জন্য ভ্রমণ ভাতা।

আবেদনের যোগ্যতা

  • শেভেনিং স্কলারশিপের আওতাভূক্ত কোন দেশের নাগরিক হতে হবে। বাংলাদেশ এসব দেশের মধ্যে রয়েছে।
  • শেভেনিং স্কলারশিপ পাবার সর্বনিম্ন দুই বছরের মধ্যে আপনাকে স্বদেশে ফিরে যেতে হবে।
  • অবশ্যই স্নাতক ডিগ্রির সমস্ত পড়ালেখা সম্পন্ন করেছেন এমন হতে হবে।
  • অবশ্যই কমপক্ষে দুই বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
  • যারা স্কলারশিপ পাবে তাদেরকে ১৫জুলাই ২০২১ এর মধ্যে যুক্তরাজ্যের তিনটি ভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় কোর্সের জন্য আবেদন করতে হবে।

কাজের অভিজ্ঞতা যেমন হতে হবেঃ

আপনার শেভেনিং এর জন্য আবেদন জমা দেওয়ার আগে অবশ্যই আপনাকে কাজের-অভিজ্ঞতার শর্ত পুরণ করতে হবে। যেসব শর্ত রয়েছেঃ –

  • ফুল টাইম চাকুরী।
  • পার্ট-টাইম চাকুরী।
  • স্বেচ্ছাসেবামূলক কাজ (Voluntary work)।
  • পেইড না নন-পেইড ইন্টার্নশিপ।

কাজের অভিজ্ঞতা সম্পর্কিত আরও তথ্যের জন্য, এখানে যান।

যেসকল স্থানের প্রার্থীদের জন্য প্রযোজ্য: সকলের জন্য উন্মুক্ত।

আবেদন পদ্ধতি

  • ২০২০ সালের ৩ সেপ্টেম্বর থেকে ৩ নভেম্বর মধ্যে যুক্তরাজ্যে অধ্যয়নের জন্য শেভেনিং স্কলারশিপের আবেদন করা যাবে।
  • এই বৃত্তির জন্য কীভাবে আবেদন করতে হবে তার বিশদ জানার জন্য শেভেনিং এর ওয়েবসাইটে যেয়ে বাংলাদেশ নামক ওয়েবপেজ থেকে জেনে নিবেন। যা অফিশিয়াল লিঙ্ক বাটনে ক্লিক করলে পেয়ে যাবেন।
  • অতঃপর আবেদন করুন বাটনে ক্লিক করে একটি একাউন্ট খুলে আবেদন করতে হবে।

আবেদনের শেষ তারিখ: নভেম্বর ৩, ২০২০
অফিসিয়াল লিঙ্কঃ https://www.youthop.com/link?u=https%3A%2F%2Fwww.chevening.org%2Fscholarship%2Fbangladesh%2F

Submit Your Comments

x

Check Also

"How to go to australia study"

Pilot plans to bring international students back to Australia now in final stage

Australia is hammering out the final details of two pilot programmes which ...